“পোকেমন গো” গেমেই ৫৬ শতাংশ শেয়ার বৃদ্ধি নিনটেন্ডোর

“পোকেমন গো” গেমেই ৫৬ শতাংশ শেয়ার বৃদ্ধি নিনটেন্ডোর

৬ জুলাই ‘পোকেমন গো’ নামে স্মার্টফোনের জন্য নতুন একটি গেম বাজারে ছাড়ে ভিডিও গেম নির্মাতা নিনটেন্ডো। বাজারে আসার সঙ্গে সঙ্গেই জনপ্রিয়তার তুঙ্গে উঠেছে অগমেন্টেড রিয়েলিটির এই গেম। বাজারে আসার প্রথম সপ্তাহে শুধু যুক্তরাষ্ট্রেই ৫ দশমিক ১৬ শতাংশ স্মার্টফোনে নামানো হয়েছে গেমটি। একই সঙ্গে রকেট গতিতে বাড়ছে ওই জাপানি প্রতিষ্ঠানের শেয়ারের দর। সোমবার এক দিনেই নিনটেন্ডোর শেয়ারের দাম বাড়ে ২৫ শতাংশ, আর মঙ্গলবার বেড়েছে আরও ১৩ শতাংশ। সপ্তাহের শেষ দিন বৃহস্পতিবার বেড়েছে ১৬ শতাংশ। সব মিলিয়ে ৫৬ শতাংশ মূল্যবৃদ্ধির সংবাদ নিয়ে সপ্তাহ শেষ করেছে নিনটেন্ডো।

অ্যাপলের অ্যাপস্টোর ও গুগলের প্লে স্টোর থেকে বিনা মূল্যে নামানো যায় পোকেমন গো গেমটি। কিন্তু খেলার বিভিন্ন ধাপে সুবিধা নিতে হলে অর্থের বিনিময়ে তা নিতে হয়। আর এতেই আয় করছে নিনটেন্ডো। নিনটেন্ডো একাই তৈরি করেনি পোকেমন গো। যুক্তরাষ্ট্রভিত্তিক প্রতিষ্ঠান পোকেমন এবং নিয়ান্টিকের সঙ্গে মিলে তৈরি করেছে এই গেম। এসব প্রতিষ্ঠান গেম থেকে আয়ের একটি নির্দিষ্ট অংশ পাবে। প্রসঙ্গত, ১৯৯০ সালে নিনটেন্ডোই গেমের মাধ্যমে পোকেমন চরিত্রটিকে পরিচয় করে দিয়েছিল।

এত কিছুর পরও কম বিড়ম্বনা পোহাতে হয়নিকে নির্মাতাকে। গেমটি স্মার্টফোনের ক্যামেরার মাধ্যমে সামনে থাকা এলাকা এবং জিপিএসের দেওয়া তথ্য মিলিয়ে বাস্তব অবস্থানেই পোকেমন নামের বিভিন্ন শক্তির অধিকারী প্রাণী খুঁজতে হয়। সেসব প্রাণী খুঁজতে খুঁজতে অনেকেই এদিক-সেদিক ছুটতে গিয়ে বেখেয়ালে দুর্ঘটনা ঘটিয়েছেন। এক মার্কিন নারী তো বাসার কাছের নদীর ধারে পোকেমন খুঁজতে গিয়ে একটি মৃতদেহই খুঁজে পান! গেমটিতে নির্দিষ্ট কিছু এলাকা, ভাস্কর্য এবং ঐতিহাসিক স্থানে বিশেষ বোনাস আর প্রয়োজনীয় সরঞ্জাম পাওয়ার সুযোগ রয়েছে। তাই সেসব পেতে পোকেমন গো গেমাররা ছুটছেন সেসব জায়গায়। তবে এতে বেশ কিছু ঐতিহাসিক স্থানের মর্যাদা ও পরিবেশ নষ্ট হচ্ছে উল্লেখ করে কর্তৃপক্ষ সেসব জায়গায় গিয়ে গেমটি না খেলতে জনগণকে অনুরোধ জানিয়েছে।

ইউএস হলোকাস্ট মিউজিয়াম ও আরলিংটন ন্যাশনাল সিমেট্রি কর্তৃপক্ষ আনুষ্ঠানিকভাবে গেমটি থেকে এই দুটি স্থানকে সরিয়ে নিতেও বলেছে নির্মাতাপ্রতিষ্ঠান নিনটেন্ডোকে। শুধু তা-ই নয়, গেমটিতে উল্লেখ করা জায়গাগুলোতে ওত পেতে থাকছে ডাকাত আর সন্ত্রাসীরাও! গত সপ্তাহে এমনই কয়েকটি ঘটনায় চার ডাকাতকে গ্রেপ্তার করে ও’ফ্যালন মিসৌরি পুলিশ ডিপার্টমেন্ট। এ ঘটনার পর নিনটেন্ডো অপরিচিত বা নির্জন জায়গায় কয়েকজন একসঙ্গে গিয়ে খেলার পরামর্শ দেয়। এ ছাড়া আর কোনো দুর্ঘটনা যেন না ঘটে, সে জন্য রাস্তাঘাটে গেম খেলার সময় সাবধানে চলাফেরা করতে অনুরোধ করেছে কোম্পানিটি।

এখন পর্যন্ত যুক্তরাষ্ট্র, অস্ট্রেলিয়া ও নিউজিল্যান্ডে পোকেমন গো পাওয়া যাচ্ছে। অপেক্ষায় আছে ইউরোপ আর জাপান।

সূত্র: বিবিসি