রসে ভরা আনারস ও এর উপকারিতা

রসে ভরা আনারস ও এর উপকারিতা

প্রচন্ড গরমে অনেকের কাছে আনারস এক স্বস্তিদায়ক ফল। গায়ে প্রচন্ড জ্বর, অনেকে পরামর্শ দেন আনারস খেতে কারণ অনেকের মতে আনারস পুষ্টিকারক, শক্তিদায়ক ও বলদায়ক ফল। শুধু তাই নয় এটি একটি ঔষধি ফলও বটে।

আসুন জেনে নিই ফলটির কিছু উপকারিতা সম্পর্কে:

  • রক্তচাপ দূরীকরণ:
    আনারসে রয়েছে সোডিয়াম ও পটাশিয়াম।এই দুটি উপাদান দেহে রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখে।
  • গর্ভধারণে সহায়তা:
    অনেক নারী গর্ভধারণে নানা সমস্যার সম্মুখীন হয়ে থাকেন।আনারসে রয়েছে যথেষ্ট পরিমাণে ফলিক এসিড যা নারীদের গর্ভধারণের বিভিন্ন সমস্যা দূর করতে খুবই কার্যকরী।
  • চোখের জন্য:
    আনারসে রয়েছে ভিটামিন ‘সি’ এবং অ্যান্টি-অক্সিডেন্ট।এছাড়াও রয়েছে ম্যাঙ্গানিজ ও পটাশিয়ামের মতো খনিজও যা ক্ষতিগ্রস্ত কোষ মেরামত করে।বয়স্কদের চোখে ম্যাকুলার ডিজেনারেশন নামের যে রোগ হয় তার ঝুঁকি কমায় আনারস।এছাড়াও এ ফলে রয়েছে বিটাক্যারোটিন, যা চোখের জন্য খুবই উপকারী।
  • ভিটামিনে ভরপুর:
    আনারসে রয়েছে প্রচুর পরিমানে ভিটামিন ‘এ’, ‘সি’, ‘ই’ ও ‘কে’।খনিজের মধ্যে রয়েছে পটাশিয়াম ও ক্যালসিয়াম।আরো আছে ইলেকট্রোলাইট ও ক্যারোটিনের মতো সাইটো-নিউট্রিয়েন্ট।আছে অ্যান্টি-অক্সিডেন্ট,যা রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ায়।অ্যাথেরোসক্লেরোসিস,হৃদরোগ, আর্থ্রাইটিস এবং বিভিন্ন ধরনের ক্যান্সার প্রতিরোধেও কাজ করে এটি।
  • ব্যথানাশক হিসেবে:
    আনারস ব্যথানাশক হিসেবে কাজ করে।তা ছাড়া রক্ত চলাচল স্বাভাবিক রাখতেও কাজ করে এটি।কারণ এতে আছে এমন উপাদান,যা রক্ত জমাট বাঁধতে বাধা দেয়।
  • কোষ্ঠকাঠিন্য দূরীকরণে:
    কোষ্ঠকাঠিন্যের সমস্যায় আনারসের শরবত ব্যাপক উপকারী।আনারসে বিদ্যমান উচ্চামাত্রার ফাইবার মল তৈরিতে দারুণ সহায়ক।শরীরের বর্জ্যকে দ্রুত মলাশয়ে নিতেও সহায়তা করে আনারস।